হিজড়া সম্প্রদায়ের আড়াই লাখ টাকার গরু উদ্বার করলো ফায়ার সার্ভিস 

এস,এম,মনির হোসেন জীবন : রাজধানীর উত্তরার কামারপাড়া এলাকা থেকে পুলিশের দেয়া হিজড়া সম্প্রদায়ের আড়াই লাখ টাকা মূল্যের একটি কালো রংয়ের গরু অক্ষত অবস্থায় উদ্বার করলো ”দি লাইফ সেভিং ফোর্স বাহিনী”।
টঙ্গী তুরাগ নদীর ওপর নির্মানাধীন বিশ্বইজতেমার পুরাতন ব্রিজ ও নতুন নির্মাণাধীন দু’ ব্রিজের মধ্যবর্তী স্থানে পড়ে যাওয়া গরুটিকে অত্যাধুনিক সরঞ্জামাদী ব্যবহার করে প্রায় আধা ঘন্টার চেষ্টায় উদ্ধার করা হয় গরুটিকে।
টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমা মাঠ থেকে আসা একটি গরু রাস্তা দিয়ে আসার পথে অসাবধনাবশত : গাড়ির ধাক্কায় দুই ব্রিজের মাঝখানে পড়ে গেলে এদুর্ঘটনা ঘটে।
আজ সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীর উত্তরার কামারপাড়া পুরাতন ব্রিজ ও নতুন নির্মাণাধীন ব্রিজে এঘটনাটি ঘটে।
ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স উত্তরা স্টেশনের স্টেশন অফিসার মোহাম্মদ হানিফ আজ সোমবার এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
তিনি জানান, আজ সোমবার সন্ধ্যা ৬টা ৪ মিনিটের সময় উত্তরা ১০ নম্বর সেক্টর কামারপাড়া ব্রিজের নিচে একটি গরু পড়ে যাওয়ার সংবাদ পাই। এরপর আমি সঙ্গে সঙ্গে উত্তরা ফায়ার স্টেশনের ইটি গাড়িসহ একটি ইউনিট নিয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে দেখতে পাই যে, কামারপাড়া পুরাতন ব্রিজ ও নতুন নির্মাণাধীন ব্রিজের মাঝখানে কালো রংয়ের একটি বড় গরু বিশ্ব ইজতেমা মাঠ থেকে আসা একটি গরু গাড়ির ধাক্কায় দু’ ব্রিজের মাঝখানে পড়ে গেলে এদুর্ঘটনাটি ঘটে।
তিনি আরও জানান, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের অত্যাধুনিক উদ্ধার সরঞ্জাম অটোস্কেপ, কেরাবিনা ও রশির সাহায্যে প্রায় ত্রিশ মিনিটের চেষ্টায় আমরা গরুটিকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। ব্রিজের নিচে পড়ে যাওয়া গরুটি উত্তরণ খামার প্রকল্পের বলে জানা গেছে।
গরুটির মালিক হাজী কচি বেগম। তিনি তৃতীয় লিঙ্গের মানুষ। তুরাগের কামারপাড়া রাজাবাড়ি এলাকার বাসিন্দা বলে জানা গেছে।
হিজড়া সম্প্রদায়ের নেত্রী হাজী কচি বেগম আজ সোমবার জানান, বর্তমানে পুলিশের ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি মো: হাবিবুর রহমান (স্যার) গত সাড়ে ৩ বছর আগে আমাকে প্রথমে ৪টি গরু প্রদান করে। বর্তমানে আমার ছোট বড় মোট ১৮টি গরু রয়েছে ।
তিনি জানান, আমার গরু গুলো টঙ্গী বিশ্বইজতেমা মাঠে দৈনিক নিয়ে যাওয়া হয়। আজ সন্ধ্যায় খামারে নিয়ে যাবার সময় কামারপাড়া পুরাতন ও নতুন নির্মানাধীন ব্রিজ দিয়ে যাবার পথে গাড়ির উচ্চহর্নের শব্দে ও গাড়ির ধাক্কায় লাফ দিয়ে দু’ব্রিজের মাঝখানে পড়ে গেলে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
গরুর মালিক কচি বেগম জানান, দুর্ঘটনা কবলিত গরুর পিঠে সামান্য আঘাত লেগেছে। গরুটির মূল্য প্রায় আড়াই লাখ টাকা। ১৮টি গরু আমি ও আমার তৃতীয় লিঙ্গের মানুষ দেখাশোনা করেন। তাৎক্ষনিক ভাবে আমার গরুটি ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা অক্ষত অবস্থায় উদ্বার করেছে। সেজন্য আমি তাদেরকে আন্তরিক ভাবে ধন্যবাদ জানাচিছ।
#####