কঠোর লকডাউন অমান্য করে ঝালকাঠিতে অবাদে চলাফেরা

সাকিবুল ইসলাম সুজনে(ঝালকাঠি)ঃ দ্বিতীয় ধাপে করোনা সংক্রমন রোধে সরকার ১৪ এপ্রিল থেকে কঠোর লকডাউন ঘোষনা দিলেও এ নির্দেশনা মানছে না ঝালকাঠি জেলার গ্রাম পর্যায়ের সাধারন মানুষ।

দোকানপাট খোলা রয়েছে, মানুষ বাহিরে স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে ঘোরাঘুরি করছে, চায়ের দোকানে, খাবারের হোটেলে আড্ডা দিচ্ছে। সাপ্তাহিক গ্রাম্য হাটে হাজার হাজার মানুষ বেচাকেনা করছে। মসজিদে নামাজ পড়ছেন শত শত মুসুল্লি। কারো মধ্যে নেই করোনার ভয়, নেই আতঙ্ক।

স্বাস্থ্যবিধি কেউ মানছে না বললেই চলে। মুখে মাস্ক ছাড়াই অবাদে বিচরন করতে দেখা যায়। কারো মাস্ক আছে গলার নিচে। অনেককে আবার পুলিশের ভয়ে মাস্ক পকেটে নিয়ে ঘুরতে দেখা যায়।

কয়েকজনের সাথে প্রতিবেদক কথা বলেন, তারা জানান, বাজার না করলে খাবো কি, ঘরে বসে থাকলে সরকার কি আমাদের ঘরে খাবার পৌঁছে দিবে?

অনেকে আবার বলেন, গ্রামে করোনা নেই। আবার কেউ কেউ বলেন মৃত্যু যখন হবে তা তো ফিরিয়ে রাখা যাবে না। তাই এসব লকডাউনে বাসায় থেকে কি লাভ। থানা পুলিশ টহল দিলেও তা কোনো কাজে আসছে না।

পুলিশ দেখলে সবাই পালিয়ে যায় আর পুলিশ চলে গেলে সবাই যে যার মত স্বাস্থ্যবিধি না মেনে চলাফেরা ঘোরাঘুরি করে। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে কাঠালিয়া উপজেলার এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক প্রতিবেদককে বলেন আমরা জনগণকে লকডাউন মানানোর জন্য জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছি। তাদেরকে আমরা সচেতন করছি ঘরে থাকার জন্য।