রাজধানীতে তেলাপোকার ঔষুধ খেয়ে শিশুর মৃত্যু

রাজধানীর দক্ষিণখানের হলান এলাকায় তেলাপোকার ঔষুধ খেয়ে হাবিবুর রহমান (০৩) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। তার মরদেহ ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের পাঠানো হয়েছে।

শনিবার (২৪ এপ্রিল) বেলা ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। পরবর্তীতে তাকে উদ্ধার করে নিকটস্থ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ঢামেক হাসপাতালে রেফার করেন। দুপুর ১টার দিকে ঢামেক হাসপাতালের নেয়া হলে জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মৃত ওই শিশু দক্ষিণখানের নদ্দাপাড়ার হলান এলাকার হুমায়ন কবিরের মেয়ে। তারা হলানের একটি বাসায় ভাড়া থাকেন।

ওই শিশুর বাবা হুমায়ন কবির অন্যদিগন্ত’কে বলেন, আমি পেশায় মাছ ব্যবসায়ী। আমার স্ত্রী গার্মেন্টস কর্মী। কাজের তাগিদে স্বামী-স্ত্রী বাহিরে থাকায় ছেলে-মেয়ে তাদের নানীর কাছে থাকে।

তিনি বলেন, প্রতিদিনের ন্যায় আমি এবং আমার স্ত্রী কাজের জন্য সকালে বাসা থেকে বেরিয়ে পড়ি। পরে বেলা ১১টার দিকে বাসায় রাখা তেলাপোকার ঔষুধ খেয়ে ফেলে হাবিবুর রহমান। পরে খবর পেয়ে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। দুই ছেলে ও দুই মেয়ের মধ্যে হাবিবুর রহমান তৃতীয়।

এ বিষয়ে ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া বলেন, তেলাপোকার ঔষুধ খেয়ে মৃত শিশুটির মরদেহ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। বিষয়টি দক্ষিণখান থানা পুলিশকে জানানো হয়েছে।

অপরদিকে দক্ষিণখান থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ইব্রাহিম বলেন, ‘ওই শিশুটির (হাবিবুর রহমান) বাড়ির রেকের মধ্যে তেলাপোকার ঔষুধের প্যাকেট রাখা ছিল। বাবা-মা বাহিরে বের হয়ে পড়লে, হাবিবুর রহমান প্যাকেট ছিড়ে তেলাপোকার ঔষুধ মুখে দিয়ে পড়ে যায়। তখন তার মুখ দিয়ে লালা বের হচ্ছিল। পাশের বাড়ি একজন বিষয়টি তার বাবা-মা কে জানায়। পরে তারা এসে হাবিবকে প্রথমে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে ঢামেক হাসপাতলে নিয়ে যাওয়ার পথে মারা যায়।’