মিরপুরে ডেসকোর চোরাই ক্যাবলসহ ড্রাম চুরির ঘটনায় গ্রেফতার-৪

এস,এম,মনির হোসেন জীবন:রাজধানীর মিরপুর এলাকায় ডেসকোর ৩৩ হাজার ভোল্টেজ প্রজেক্টের ১৬৫ মিটার ক্যাবলসহ ড্রাম চুরির ঘটনায় ৪ জনকে গ্রেফতার করেছে মিরপুর মডেল থানা পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হচেছ- আলামিন মোল্লা (২৬), মিলন (৩৫), মোঃ জাহিদ হাসান ওরফে জসীম (৩৯) ও আব্দুল আউয়াল (৪২)।
গ্রেফতারকৃতদের ৭ দিনের পুলিশ রিমান্ডের আবেদন করে আজ রোববার বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।
পুলিশ জানান, অভিযানে চুরি যাওয়া ১৬৫ মিটার বৈদ্যুতিক ক্যাবল যার মূল্য আনুমানিক ১০ লাখ টাকা উদ্ধারসহ চুরির কাজে ব্যবহৃত একটি ক্রেন জব্দ করা হয়।
রাধানীর পল্লবী ও ঢাকা জেলার কেরাণীগঞ্জ এলাকা গত শুক্রবার অভিযান চালিয়ে তাদেকে গ্রেফতার করা হয়।
ডিএমপি মিরপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ মোস্তাজিরুর রহমান আজ রোববার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
তিনি বলেন, মিরপুর পশ্চিম কাজীপাড়া বেগম রোকেয়া স্মরণী মেট্রোরেল পিলার নং-২৬৭/২৬৮ এর মধ্যখানে রাস্তার উপর রাখা ডেসকো ৩৩ হাজার ভোল্টেজের আন্ডারগ্রাউন্ড প্রজেক্টের ১৬৫ মিটার ক্যাবলসহ ড্রাম চুরি ঘটনা ঘটে। এই চুরি ঘটনায় ঠিকাদার মোঃ আবুল কাইয়ুম (৪২) এর অভিযোগের প্রেক্ষিতে মিরপুর মডেল থানায় ২৯ এপ্রিল একটি মামলা রুজু হয়।
ওসি আরও বলেন, মামলাটির তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মোঃ খোকন মিয়া ঘটনাস্থলের আশপাশে সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহপূর্বক পর্য়ালোচনা করে ক্যাবল চুরির ঘটনায় আলামিন মোল্লাকে সনাক্ত ও পল্লবী সেকশন-৭ এলাকা থেকে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারকৃত আলামিনকে জিজ্ঞাসাবাদে তার তথ্য মতে চুরি ঘটনায় জড়িত সহযোগি মিলনকে পল্লবী সেকশন-১২ থেকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের দেখানো মতে নারায়ণগঞ্জ জেলার বন্দর থানার কেওডালা দাদা মার্কেটের গ্যারেজ থেকে একটি KATO ব্রান্ডের ক্রেন জব্দ করা হয়। এই ক্রেনটি ক্যাবল চুরির কাজে ব্যবহৃত হয়েছিল। তাদের দেওয়া তথ্য মতে দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ থানার আব্দুল্লাহপুর কলাকান্দি চায়না কোম্পানী গোডাউনে অভিযান চালিয়ে চুরি যাওয়া ১৬৫ মিটার বৈদ্যুতিক ক্যাবল যার ওজন ১৭৭৫ কেজি উদ্ধার করা হয়।
সয় ‍চুরির ঘটনায় জড়িত মোঃ জাহিদ হাসান ওরফে জসীম ও আব্দুল আউয়াল কে গ্রেফতার করা হয়।
প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে প্রাপ্ত তথ্য সম্পর্কে ওসি মোস্তাজিরুর রহমান বলেন, আসামীরা প্রত্যেকে সংঘবদ্ধ চোর চক্রের সক্রিয় সদস্য। গ্রেফতারকৃত জসীম নিজেকে পিডিবির ঠিকাদার পরিচয় দিয়ে কৌশলে মূল্যবান ক্যাবলের খোঁজখবর নিয়ে আলামিন ও মিলনকে দিয়ে ক্যাবল চুরি করে। এক্ষেত্রে তারা ক্রেন ও পিকআপ ব্যবহার করে। তারা সকলে চুরি করা বৈদ্যুতিক ক্যাবল আউয়াল এর নিকট বিক্রয় করে। আউয়াল উক্ত ক্যাবল এর তামা ও এ্যালুমিনিয়াম এবং প্লাস্টিক কাভার আলাদা আলাদা করে বিভিন্ন অসাধু ব্যবসায়ীর নিকট বিক্রয় করে।
এবিষয়ে গ্রেফতারকৃতদের ৭ দিনের পুলিশ রিমান্ডের আবেদন করে আজ রোববার বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।