তৃতীয় দফায় নড়াইলে তিন দিনের লকডাউন

নড়াইল প্রতিনিধিঃ নড়াইলে করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় রোববার (২৭ জুন) রাত ১২টা থেকে ৩০ জুন রাত ১২টা পর্যন্ত তিন দিন সবার্ত্নক লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। রোববার (২৭ জুন) রাতে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির এক জরুরি সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ওই বৈঠকের পর রাতে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান এ সক্রান্ত গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেন।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান স্বাক্ষরিত গণবিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, রোববার (২৭ জুন) রাত ১২টা থেকে ৩০ জুন রাত ১২টা পর্যন্ত তৃতীয় দফায় তিন দিন এই লকডাউন চলবে। লকডাউন চলাকালে, সকল ধরনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, শপিংমল, মুদি দোকান ও চায়ের দোকান বন্ধ থাকবে। তবে কাঁচাবাজার, মাছের বাজার ও ফলের দোকান।

প্রতিদিন সকাল ৭টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। এবং খাবারের দোকান, হোটেল-রেস্তেরা সকাল ৮টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত শুধুমাত্র পার্সেল বা প্যাকেট আকারে বিক্রয় করা যাবে। কোন অবস্থাতেই হোটেলে বসে খাবার খাওয়া যাবে না বা চা বিক্রয় করা যাবে না। সকল প্রকার পর্যটন কেন্দ্র, রিসোর্ট, কমিউনিটি সেন্টার ও বিনোদন কেন্দ্র বন্ধ থাকবে।

লকডাউন কালীন সকল ধরনের সাপ্তাহিক হাট, গরুর হাট বন্ধ থাকবে। জেলার অভ্যন্তরে অথবা আন্তঃজেলা দূরপাল্লার সকল ধরণের গণপরিবহন বন্ধ থাকবে। এক্ষেত্রে ইজিবাইক, থ্রি হুইলারসহ সকল প্রকার যান্ত্রিক যানবাহন বন্ধ থাকবে। অতি জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে যাওয়া যাবে না, জরুরি ক্ষেত্রে বাইরে আসতে হলে মাস্ক পরিধান বাধ্যতামূলক।

তবে জরুরি পরিষেবা, চিকিৎসাসেবা, কৃষিপন্য, মৎস্য ও প্রাণী খাদ্য, খাদ্য সরবরাহ সংগ্রহ, বিদুৎ, গ্যাস, ফায়ার সার্ভিস, টেলিকম, ইন্টারনেট, ব্যাংকিং, মোবাইল ব্যাংকিং, ঔষধ শিল্পসংশ্লিষ্ট যানবাহন ও কমর্ীরা এর আওতা বহিভর্ূত থাকবে। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ/সরকার কতর্ৃক জারিকৃত এ সংক্রান্ত অন্যান্য নির্দেশনাসমূহও বিধি নিষেধের অন্তভুর্ক্ত থাকবে। এ আদেশ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।