করোনায় বন্দ হলো ধামরাইয়ের যশোমাধবের রথযাত্রা উৎসব

মোঃ রিপন মিয়া (স্টাফ রিপোর্টার)ঃগতকাল (১২ জুলাই) করোনা ভাইরাসের কারণে অনুষ্ঠিত হয়নি এশিয়া মহাদেশের বৃহত্তম ঢাকার ধামরাইয়ের যশোমাধবের রথযাত্রা উৎসব ও মেলা।

রথ যাত্রা আয়োজক কমিটি সূত্রে জানা গেছে, বাংলার গৌরবময়, ঐতিহ্যবাহী ধামরাইয়ের এই সুপ্রাচীন রথযাত্রা উৎসবের ইতিহাস প্রায় ৪’শ বছরের পুরোনো। ১০৭৯ বঙ্গাব্দে প্রথম সুচনা হয় এই রথ যাত্রার। তখন রথ ছিল ৭৫ ফুট উঁচু এবং ৪৪ ফুট প্রস্থ। দৃষ্টিনন্দন এই রথ ১৯৭১ সালে পাক হানাদার বাহিনী পুড়িয়ে দেয়। দেশ স্বাধীনের পর আবার তা পুন:নির্মান করা হয়।

রথযাত্রা উৎযাপন কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নন্দ গোপাল জানান, ১২ জুলাই রথটানের মধ্য দিয়ে এবারের রথযাত্রা উৎসব শুরু হওয়ার কথা থাকলেও সারা বিশ্বের মতো বাংলাদেশেও করোনাভাইরাস সংক্রমণ বেড়ে যাওয়া এবং চলমান কঠোর লকডাউন থাকায় ঢাকা জেলা পুলিশ, স্থানীয় উপজেলা প্রশাসন ও পৌর কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে গত বছরের ন্যায় এবারও রথযাত্রা উৎসব ও রথমেলা অনুষ্ঠান না করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ হয়েছে।

 

ধামরাই থানা ওসি আতিকুর রহমান বলেন, ইতিমধ্যেই রথ ও মেলা কমিটির নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় করে করোনার জন্য রথ উৎসব বন্ধ রাখা হয়েছে। তবে, রথ ও উৎসবের স্থান কঠোর নজরদারিতে রাখা হয়েছে।

 

ঢাকা-১৯ (ধামরাই)-এর সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব বেনজীর আহমেদ বলেন, হিন্দু সম্প্রদায়ের সকলের সাথে আলাপ করে রথ যাত্রা উৎসব বন্ধ রাখা হয়েছে। হচ্ছে না উল্টো রথ টান উৎসব। বন্ধ রয়েছে রথের মেলা। ৪’শ বছরের মধ্যে ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় একবার রথযাত্রা উৎসব বন্ধ ছিল। করোনা ভাইরাসের সংক্রমনের ঠেকাতে গত বছর ও এ বছর উৎসব বন্ধ রয়েছে।

 

একইভাবে সাভারের কাতলাপুরে কানাইলাল ও দক্ষিন পাড়ার গোপিনাথ বাবুর রথ যাত্রা উৎসব স্থগিত রাখা হয়েছে।