নড়াইল বঙ্গবন্ধু স্কোয়াড সদস্যরা নিজেদের জীবনকে উপেক্ষা করে করোনায় মৃত ৫৫ মানব সন্তানের দাফন ও দাহ করল

 

মোঃ আশিকুজ্জামান নড়াইলঃ অর্থ নৈতিক অভাব, প্রয়োজনী সুরক্ষা সামগ্রীরসহ নানা প্রতিকুলতার মধ্যদিয়ে নড়াইল বঙ্গবন্ধু স্কোয়াড মানবতার সেবায় এক অন্যান্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তির পরিবারের সদস্যরা যখন মৃত প্রিয়জনের কাছ থেকে সরে যাচ্ছেন, ঠিক সে সময় নড়াইল বঙ্গবন্ধু স্কোয়াড সদস্যরা নিজেদের জীবনকে উপক্ষো করে এবং নিঃস্বার্থভাবে করানোয় আক্রন্ত হয়ে স্মৃষ্টির সেরা জীব মানুষের দাফন ও দাহ করে যাচ্ছেন। ২০২০ সালের এপ্রিল মাস থেকে ২০২১ সালের জুলাই মাসের ১৩ তারিখ পর্যন্ত ১৫ মাসে নড়াইলে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মার যাওয়া ৫৫জন মানব সন্তানদের দাফন ও দাহ করেছেন। পাশাপাশি করোনা সচেতনতা প্রচার এবং বিভিন্ন লকডাউনে বঙ্গবন্ধু স্কোয়াড সদস্যরা বিশেষ ভুমিকা পালন করে চলছেন। জেলার বিভিন্ন এলাকার ৬০জন যুবক দাফন ও দাহ টিমে নিঃস্বার্থ এ মানবেতরের সেবা করে যাচ্ছেন। এর মধ্যে মুসলিম দাফন টিমে আছেন ৩০জন এবং সনাতন ধমর্ীয়দের দাহ টিমে আছে ৩০জন। এ ছাড়া  মুসলিম নারীদের দাফনের জন্য ৮জন নারী সদস্য ও রয়েছেন নড়াইল বঙ্গবন্ধু স্কোয়াডে।

জানা গেছে নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক সফল অধিনায়ক মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা করোনা সচেতনা প্রচার বিভিন্ন সময়ে লকডাউনে কার্যকরি ভুমিকা পালন এবং করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া মানব সন্তানদের ধমীয় আচার আচরণের মাধ্যমে দাফন ও দাহ করার জন্য ২০২০ সালের ৯ এপ্রিল বঙ্গবন্ধু স্কোয়াড গঠন করেন। মাশরাফি বিন মোর্ত্তজার পিতা গোলাম মোর্ত্তজা স্বপনকে চেয়ারম্যান, অপু খন্দকারকে সাধারণ সম্পাদক এবং নড়াইল জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক মাহফুজুর রহমানকে প্রধান সমন্বয়ক করা হয়। নড়াইল বঙ্গবন্ধু স্কোয়াড এর সদস্যদের সকল প্রকার সুরক্ষা সামগ্রীসহ আর্থিক সহযোগিতা করছেন নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা।

নড়াইল জেলা যুবলীগরে যুগ্ম আহবায়ক ও নড়াইল বঙ্গবন্ধু স্কোয়াড এর প্রধান সমন্বয়ক মোঃ মাহফুজুর রহমান বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান নিঃস্বার্থভাবে পাকিস্তানি হায়নাদের হাত থেকে দেশকে স্বাধিন করেছিলেন। তিনি তার বিখ্যাত ভাষনে বলেছিলেন আমি মন্ত্রীত চাই না। আমি চাই এ দেশের মানুষকে মুক্ত করতে। তার স্নেহের সন্তান মাননীয় প্রধান মন্ত্রী গনতন্ত্রের মানষ কন্যা শেখ হাসিনা তার জীবনকে বাজি রেখে বাংলাদেশের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন। আমি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান ও মাননীয় প্রধান মন্ত্রী গনতন্ত্রের মানষ কন্য শেখ হাসিনার দল করি। তাদের আদর্শকে বুকে ধারণ করে যুবলীগ করি। আমি কেন জীবন বাজি রেখে মানব সন্তানদের দাফন কাজ করতে পারব না? এছাড়া আমাদের নড়াইলে রয়েছেন মানবতার অন্যতম প্রতিক মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা এমপি। যার সকল প্রকার সহায্য সহযোগিতায় বঙ্গবন্ধু স্কোয়াড সদস্যরা করোনা যুদ্ধে নেমেছে । ইনশাআল্লাহ এ যুদ্ধে আমরা বিজয়ী হবো।

তিনি আরো বলেন, যখন দেখলাম করোনায় আক্রান্ত হয়ে স্মৃষ্টির সেরা জীব মানুষ  মারা যাচ্ছে তখন মারা যাওয়া ব্যক্তির পরিবারের সদস্যসহ কোন মানুষই তাদের দাফন করতে আসছে না। ঠিক সে সময় আমি সিদ্ধান্ত নেই করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া সকল মানুষদের ধমীয় মর্যাদার মধ্যদিয়ে দাফন ও দাহ করব। আমার টিমের সকল সদস্যই তাদের জীবনকে বাজি রেখে পরিবারের অন্য সদস্যদের  ঝুকির মধ্যে রেখে দাফন ও দাহ কজে নিয়োজিত আছেন। তিনি আরো বলেন, আমাদের অর্থনৈতিক সমস্য,প্রয়োজনীয় সুরক্ষা সামগ্রীসহ নানা সমস্য রয়েছে। তারপরও বঙ্গবন্ধু স্কোয়াডের সদস্যরা তার ও তাদের পরিবারের নিরাপত্তাকে উপেক্ষা করে মানবতার সেবা করে যাবে। আমরা ইতিমধ্যে ১৩ জুলাই ২০২১ তারিখ পর্যন্ত  ১৫ মাসে ৫৫জন মানব সন্তানের দাফন ও দাহ করেছি। তিনি সকলকে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে ও স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার আহবান জানান।

নড়াইল বঙ্গবন্ধু স্কোয়াড এর চেয়ারম্যান গোলাম মোর্ত্তজা স্বপন বলেন, ২০২০ সালের মার্চ  মাস থেকে যখন দেশ ব্যাপি করোনা মহামারি ধারণ করে তখন আমরা নড়াইলে নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মোর্ত্তজার তত্বাবধায়নে বঙ্গবন্ধু স্কোয়াড গঠন করি। শুরুতে নড়াইল বঙ্গবন্ধু স্কোয়াড এর সাধারণ সম্পাদক অপু খন্দকার ১০টি হ্যান্ড মাইক দেন। সেগুলি দিয়ে আমরা জেলার প্রতিটি প্রান্তে জনগনকে করোনা সচেতনতা বিনামূল্যে মাক্স বিতরণ এবং স্বাস্র্থ বিধি মেনে চলার পরামর্শ দিতে থাকি। এক পর্যায় দেখা গেল করোনায় আক্রান্ত হয়ে যখন কেউ মারা যায় তখন তার পরিবার বা কোন মানুষই তাকে দাফন বা দাহ করতে আসছে না। ঠিক সে সময় নড়াইল জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক মোঃ মাহফুজুর রহমানের নেত্বতে একটি দাফন কমিটি গঠন করা হয়। এ কমিটিতে ৩০জন সনাতন ধমীয় সম্প্রদয়ের যুবক রয়েছে এবং ৩০জন মুসলিম দাফন কমিটির সদস্য রয়েছে। এছাড়া আটজন মুসলিম নারী দাফন কমিটির সদস্য রয়েছে। তারা বিনা খরচে নিঃস্বার্থভাবে করোনায় আক্রান্ত মানব সন্তানদের দাফন ও দাহ করে চলেছে। ইতিমধ্যে বঙ্গবন্ধু স্কোয়াড সদস্যরা ৫৫জন মানব সন্তানের দাফন ও দাহ সম্পন্ন করেছে। নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা দাফন কমিটির সুরক্ষা সামগ্রী পিপিইসহ তাদের সকল আর্থিক সহযোগিতা করে আসছেন। নড়াইল বঙ্গবন্ধু স্কোয়াড মানবতার সেবায় সব সময় প্রস্তুত রয়েছে। যেখানেই করোনায় আক্রান্ত হয়ে মানুষের মৃত্যু সেখানেই পৌছে যাবে  বঙ্গবন্ধু স্কোয়াড সদস্যরা।#