কাশিমপুরে যুবকের অর্ধ গলিত লাশ উদ্ধার

মোঃ সুমন পাটোয়ারী(গাজীপুর)ঃ কাশিমপুরের শৈলডুবী বটতলা এলাকা থেকে জাহিদুল ইসলাম নরসুন্দর (২৮) নামের এক যুবকের পুতে রাখা অর্ধ গলিত লাশ উদ্ধার করেছে কাশিমপুর থানা পুলিশ।

১৬ জুলাই শুক্রবার সকালে গাজীপুর মহানগর কাশিমপুর থানা এলাকায় ৫ নং ওয়ার্ডের পশ্চিম শৈলডুবী বটতলা এলাকায় নির্মাণাধীন টিনশেড ঘরের মেঝেতে জাহিদুলের (২৮)  লাশ পুঁতে রাখা অবস্থায় পাওয়া যায়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছে পুলিশ।
জাহিদ নরসুন্দর দীর্ঘদিন যাবত বটতলা এলাকায় সেলুনের দোকানে কাজ করতেন। চলতি মাসের ১ তারিখে নির্মাণাধীন ভবনের পাশে স্ত্রী ও কন্যা সহ সফরের বাড়িতে ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করত।
 পুলিশ সুত্রে জানা যায়,জাহিদ গত ৭ জুলাই থেকে নিখোঁজ আছে এ নিয়ে কাশিমপুর থানায় তার স্ত্রী রোজিনা একটি সাধারন ডায়েরী করেছে।
পুলিশ সুত্রে আরো জানা যায়, নিহতের স্ত্রী রোজিনা জানায়, গত ৭ তারিখ সকালে তার ভাই বিদেশ থেকে এয়ারপোর্টে আসবে তাকে রিসিভ করার জন্য বাসা থেকে বের হয়েছে জাহিদ কিন্তু আর ফিরে আসেনি ।
গতকাল নিখোঁজ জাহিদের বাবা পঞ্চগড় থেকে এসে জাহিদের স্ত্রী এবং কন্যাকে বাড়িতে নিয়ে যায়। আজ সকালে নির্মাণাধীন ঘরের পাশ থেকে পচা দুর্গন্ধ বের হলে বাড়ির পাশের মানুষ দেখতে যায়।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়,
গতরাতে শিয়াল অথবা কুকুর গলিত লাশের একাংশ বের করে ফেলে। গলিত লাশের একাংশ দেখে স্থানীয়রা কাশিমপুর থানা পুলিশকে খবর দিলে ঘটনাস্থলে গিয়ে কোনাবাড়ী জোনের এসি সুভাষীশ ধর, কাশিমপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাহবুবে খোদা সাব-ইন্সপেক্টর সাইফুল ইসলাম সহ স্থানীয় কাউন্সিলর আলহাজ্ব দবির উদ্দিন এর উপস্থিতিতে লাশ উত্তোলন করা হয়। লাশের পরনের কাপড় দেখে এলাকাবাসী নরসুন্দর জাহিদকে শনাক্ত করে ।
ময়না তদন্তের জন্য লাশ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পাঠানো হয়েছে। এবং হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান,কোনাবাড়ী জোনের এসি সুভাষীশ ধর।