স্ত্রীকে যৌন নির্যাতনের দায়ে স্বামী গ্রেফতার

কুমিল্লা ঃকুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার ভূবনঘরে যৌতুকের দাবি মেটাতে না পেরে স্বামীর হাতে এক গৃহবধূ নিযাতনের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

অভিযোগ রয়েছে, ওই গৃহবধূকে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে ঘুম পাড়িয়ে যৌন নির্যাতন করা হয়েছে। এ ঘটনায় বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) রাতে স্ত্রীর অভিযোগের ভিত্তিতে স্বামী শাকিবকে (২৭) আটক করে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্ত শাকিব ভূবনঘর গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, আট বছর আগে ভূবনঘর গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে শাকিবের (২৭) সঙ্গে নির্যাতনের শিকার ওই নারীর (২৪) বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের দাবিতে তার ওপর চলতো নির্যাতন। এ অবস্থায় ভুক্তভোগীর বাবার কাছ থেকে কয়েক দফায় প্রায় ৫ লাখ ১০ হাজার টাকা এনে দেওয়া হয়। কিন্তু কিছুদিন না যেতেই ফের যৌতুকের দাবিতে চলে নির্যাতন। গত মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) ওই নারী জানিয়ে দেন তার বাবার পক্ষে আর টাকা দেওয়া সম্ভব না। এ কথা শুনে শাকিব তার স্ত্রীকে এলোপাতাড়ি মারধর করে এবং ঘুমের ওষুধ খাইয়ে ঘুম পাড়িয়ে স্টিলের বস্তু দিয়ে যৌন নির্যাতন করে। এ সময় তার চিৎকারে আশ-পাশের মানুষ ছুটে এলে শাকিব পালিয়ে যায়। পরে গৃহবধূ তার বাবার বাড়ির লোকজনকে মোবাইল ফোনে ঘটনাটি জানান। খবর পেয়ে তার মা এসে দ্রুত তাকে উদ্ধার করে দেবিদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেন। পরে ওই দিন রাতেই উন্নত চিকিৎসার জন্য কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপালে ভর্তি করান তিনি।

এ বিষয়ে মুরাদনগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. সাদেকুর রহমান বলেন, ‘নির্যাতনের শিকার ওই গৃহবধূর অভিযোগের ভিত্তিতে বুধবার রাতে শাকিবকে গ্রেফতার করে  আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।’