রাজধানীতে সড়ক দুর্ঘটনায় নানি-নাতনি নিহত, গুরুতর আহত-দুই

এস,এম,মনির হোসেন জীবন : রাজধানীর মিরপুরের রূপনগর থানার বেড়িবাঁধ এলাকায় ট্রাকের সাথে সিএনজি অটোরিকশার ধাক্কায় সিএনজি আরোহী একই পরিবারের এক শিশুসহ দু’জন নিহত এবং আরও দু’জন গুরুতর আহত হয়েছে।
নিহতরা হলো, নাতি সালমা বেগম (৫৪) ও তার নাতনি রিন্তা আক্তার (১১)। আহতরা হচেছ, রিন্তার মামা সোহেল রানা ওরফে সালেক হোসেন (২৪) ও বড় বোন এলিনা জাহান রিমা (১৩)। আহতদেরকে রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।
আজ সোমবার ভোর পৌনে ৬ টার দিকে মিরপুরের রূপনগর থানার বেড়িবাঁধ পাম্প এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।
ডিএমপি’র রূপনগর থানার ডিউটি অফিসার এসআই সুমি আক্তার আজ সোমবার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
এদিকে, ঢামেক পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ বাচ্চু মিয়া আজ সোমবার এসব তথ্য নিশ্চিত করে জানান, আজ ভোরে একটি সিএনজিতে করে আশুলিয়ায় জামগড়া এলাকায় বেড়াতে যাচ্ছিল একই পরিবারের চারজন। এসময় রূপনগর বেড়িবাঁধ পাম্প এলাকায় একটি ট্রাক যাত্রীবাহী সিএনজিটিকে সজোরে এসে ধাক্কা দেয়। এতে সিএনজিতে থাকা যাত্রী শিশু রিন্তা আক্তার ঘটনাস্থলেই মারা যায়। আর ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আজ দুপুর ১২টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার নানি সালমা বেগম মারা যান। এসময় সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয় বোন এলিনা জাহান রিমা (১৩) ও সিএনজি চালক মামা সোহেল রানা ওরফে সালেক হোসেন (২৪)।
পুলিশের এ কর্মকর্তা আরও জানান, খবর পেয়ে রূপনগর থানা পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে রিন্তার মরদেহটি উদ্ধার করে শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। আর সালমার মৃতদেহ ঢাকা মেডিকেলের মর্গে আছে। আহত রিমা ও সালেককে ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। ঘাতক ট্রাকটি পালিয়ে গেছে। সেটি শনাক্তের চেষ্টা চলছে।
এদিকে, ঢামেক হাসপাতালে মৃত রিন্তার খালা শিউলি আক্তারের উদ্বৃতি দিয়ে পুলিশের এ কর্মকর্তা জানান, তাদের বাড়ি রংপুর জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার কাকিনা গ্রামে। তিনি থাকেন আশুলিয়ায়। আর তার মা সালমা বেগম ও দুই বোন রিমা ও রিন্তা গ্রামে থাকেন। এলাকার বানিনগর সরকারী প্রাইমারি স্কুলের ২য় শ্রেণিতে পড়ত রিন্তা। তিন দিন আগেই নানীর সঙ্গে দুই বোন আদাবর ১০ নম্বর বালুর মাঠে নানা আবুল হোসেনের কাছে বেড়াতে আসেন। সেখান থেকে আজ ভোরে মামা সালেকের সিএনজিতে করে আশুলিয়া খালা শিউলির বাসায় যাচ্ছিল। যাবার পথে মিরপুরের রূপনগর থা্নার বেড়িবাঁধ এলাকায় এ দুর্ঘটনার শিকার হন তারা।
তিনি আরও জানান, রিমাকে পঙ্গু হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা দিয়ে বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। আর সালেক সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে ভর্তি আছেন। রিন্তার মা দুলালি বেগম গত বছরের নভেম্বরে মারা যায়। তার বাবা এরশাদুল ইসলাম গ্রামে থাকেন। তিন বোনের মধ্যে সবার ছোট রিন্তা।
ঢামেক পুলিশ ফাঁড়ির ওসি মোহাম্মদ বাচ্চু মিয়া জানান, ঢামেক হাসপাতালে মারা যায় সালমা বেগম (৫৫) এবং ঘটনাস্থলে মারা যান নাতনি রিনিতার (১২)। নিহতের মরদেহের ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে রাখা হয়েছে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশকে অবগত করা হয়েছে।
অপর দিকে, রূপনগর থানার ডিউটি অফিসার এসআই সুমি আক্তার আজ সোমবার জানান, এব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের প্রস্তুতি চলছে।
####