র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক হলেন কমান্ডার খন্দকার আল মঈন

এস,এম,মনির হোসেন জীবন : র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) এর লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক হিসেবে আজ দায়িত্বভার গ্রহণ করলেন কমান্ডার খন্দকার আল মঈন, (সি), বিপিএম, পিএসসি, বিএন ।
তিনি লে. কর্নেল আশিক বিল্লাহ, পিপিএম, এসইউপি, পিবিজিএমএস, এসি এর স্থলাভিষিক্ত হলেন।
কমান্ডার খন্দকার আল মঈন ৪৫তম বিএমএ লং কোর্সের সাথে বাংলাদেশ নৌ বাহিনীতে কমিশন লাভ করেন। তিনি দীর্ঘদিন নৌবাহিনীতে ছোট ও মাঝারী বিভিন্ন জাহাজের অধিনায়ক হিসেবে এবং নৌ গোয়েন্দা পরিদপ্তরে অত্যন্ত সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়া তিনি দারফুর, সুদানে জাতিসংঘ মিশনে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে নিয়োজিত ছিলেন।
কমান্ডার খন্দকার আল মঈন দেশ ও বিদেশে নৌ বাহিনীর বিভিন্ন অত্যাধুনিক প্রযুক্তির উপর প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন। এছাড়া তিনি গত ২৬ ডিসেম্বর ২০১৯ তারিখে প্রেষণে র‌্যাব ফোর্সেসে যোগদান করেন। তিনি র্্যাব ফোর্সেস
সদর দপ্তরের যোগাযোগ ও এমআইএস উইং এর পরিচালক হিসেবে নিযুক্ত ছিলেন।
র‌্যাব ফোর্সেস সদর দপ্তর কুর্মিটোলা (উপ-পরিচালক) লিগ্যাল এন্ড মিডিয়া শাখা থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিঞ্জপ্তিতে আজ এসব তথ্য জানানো হয়েছে।
এতে বলা হয়, কমান্ডার খন্দকার আল মঈন (তিনি) যোগাযোগ ও এমআইএস উইং এর পরিচালক হিসেবে সততা, দক্ষতা ও একনিষ্ঠভাবে দায়িত্ব পালন করে র‌্যাবের আভিযানিক কর্মকান্ড ত্বরান্বিত করতে বিশেষ ভূমিকা পালন করেছেন। এছাড়াও তাঁর নিদের্শনা, প্রত্যক্ষ তত্বাবধান এবং দীর্ঘপ্রচেষ্টায় প্রয়োজনীয় হার্ডওয়ার, সফটওয়্যার ও প্রযুক্তি প্রচলন করেন। যার মাধ্যমে অতি দ্রত সময়ের মধ্যে অপরাধীকে সনাক্তকরা সম্ভবপর। বর্তমানে মাঠ পর্যায়ে ব্যবহারের ফলে আভিযানিক সক্ষমতা বৃদ্ধি পেয়েছে।
কমান্ডার খন্দকার আল মঈন ইতিপূর্বে ২০০৭ হতে ২০১০ সাল পর্যন্ত র্্যাব ফোর্সেস সদর দপ্তরের গোয়েন্দা শাখার উপ-পরিচালক হিসেবে অত্যন্ত সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন। র্্যাব ফোর্সসের গোয়েন্দা শাখায় দায়িত্ব পালনকালে তিনি জঙ্গি, চরমপন্থী এবং সন্ত্রাসী গ্রেফতারে প্রশংসনীয় অবদান রেখেছেন।
র্্যাবের সংবাদ বিঞ্জপিতে বলা হয়, ২১শে আগস্ট ২০০৪ সালে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপর গ্রেনেড হামলা মামলার আসামী গ্রেনেডসহ গ্রেফতারে প্রশংসনীয় অবদানের জন্য ২০০৯ সালে বাংলাদেশ পুলিশ মেডেল (বিপিএম) এ ভূষিত হয়েছেন। কমান্ডার খন্দকার আল মঈন ডিফেন্স সার্ভিসেস কমান্ড এন্ড ষ্টাফকলেজ (ডিএসসিএসসি) হতে পিএসসি সম্পন্ন করেন। তিনি বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অফ প্রফেশনালস (বিইউপি) থেকে এমএসসি ডিগ্রি অর্জন করেন। এছাড়া তিনি বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় হতে এমবিএ সম্পন্ন করেন।
এতে আরও বলা হয়, কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বাংলাদেশ নৌ বাহিনীর বিভিন্ন পরিসরের প্রশিক্ষক, কমান্ড ও ষ্টাফ অভিজ্ঞতা সম্পন্ন একজন চৌকস অফিসার। তিনি কর্মক্ষেত্রে অত্যন্ত সততা, পেশাদারিত্ব, পারদর্শিতা, উৎকর্ষতা ও বিচক্ষণতার সাথে দায়িত্ব পালন করে সুনাম অর্জন করে আসছেন।