রাজধানীতে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ও আহত-২

এস,এম,মনির হোসেন জীবন ঃরাজধানীতে পৃথক দু’টি সড়ক দুর্ঘটনায় দু’ ব্যক্তি নিহত হয়েছে।

নিহতরা হচেছ আল-আমিন (২২) ও জিয়াউর রহমান (৪৩)।
এ দুর্ঘটনায় রাকিব (২৭) ও কাজী সুরাইয়া (৪৫) আহত হয়েছে। তাদেরকে ঢামেক হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

এদের মধ্যে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় আল আমিন গুরুতর আহত হয়ে গত শুক্রবার দিবাগত রাত ১ টার দিকে ঢামেক হাসপাতালে মারা যান।
এছাড়া প্রাইভেট কারের ধাক্কায় আহত জিয়াউর রহমান (৪৩)কে একই হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক রাত তিনটার দিকে তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
রাজধানী গুলশানের নতুন বাজার ও যাত্রাবাড়ী থানার কাজলা এলাকায় এসব দুর্ঘটনা ঘটে।
ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (পরিদর্শক) মো. বাচ্চু মিয়া আজ শনিবার দুই জনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি নিহত আল-আমিনের বন্ধু রাব্বি’র উদ্বতি দিয়ে জানান,শুক্রবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে রাজধানী গুলশানের নতুন বাজার এলাকায় মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় আল-আমিন (২২) নামের এক যুবক নিহত হয়েছেন। এ দুর্ঘটনায় রাকিব (২৭) নামে তার এক বন্ধুও গুরুতর আহত হন।
গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের দু’জনকেই ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক আল-আমিনকে রাত ১টার দিকে মৃত ঘোষণা করেন। আহত রাকিব জরুরি বিভাগে চিকিৎসা নিয়েছেন।
নিহতের বন্ধু রাব্বি পুলিশকে জানান, রাকিব ও আল-আমিন মোটরসাইকেল করে গুলশান নতুন বাজার এলাকায় গিয়েছিল। পথে তারা দুর্ঘটনার কবলে পড়েন। গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের দু’জনকে উদ্ধার করে ঢামেকে নিয়ে আসলে আল-আমিন মারা যান।
তিনি বলেন, আল-আমিন আগে ফুডপান্ডায় চাকরি করতেন। আল-আমিনের বাড়ি শরীয়তপুর গোসাইরহাট উপজেলায়। তার বাবার নাম ইব্রাহিম। দুই ভাইয়ের মধ্যে বড় আলামিন পরিবারের সঙ্গে দক্ষিণ বাড্ডা বাঁশতলা মসজিদ এলাকায় থাকতেন।
ঢামেক হাসপাতালের ওসি মো. বাচ্চু মিয়া মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, নিহত আল-আমিনের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে রাখা হয়েছে। এ বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশকে অবগত করা হয়েছে।

অপর দিকে, শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে আটটার দিকে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী থানার কাজলা এলাকায় প্রাইভেট কারের ধাক্কায় জিয়াউর রহমান (৪৩) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে।
গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে প্রথমে একটি স্থানীয় হাসপাতালে এবং পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক শুকবার রাত তিনটার দিকে তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের ভাই ইমরান হোসেন পুলিশকে জানান, আমার ভাই বায়তুল মোকাররম মার্কেটে আমিন জুয়েলার্সে চাকরি করতেন। সেখান থেকে রিকশা নিয়ে শুক্রবার রাতে কাজী সুরাইয়া নামে তার এক সহকর্মীকে সাথে নিয়ে শনির আখড়ার বাসায় যাচ্ছিলেন। যাত্রাবাড়ী কাজলার পাড় এলাকায় একটি দ্রুতগামী প্রাইভেটকার রিকশাকে ধাক্কা দেয়। এতে তিনি ছিটকে পড়ে গুরুতর আহত হন। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে গেলে মারা যান তিনি। আর সুরাইয়া আহত হন।
তিনি আরও জানান, তাদের গ্রামের বাড়ি ফরিদপুর জেলার আলফাডাঙ্গা উপজেলায়। দুই সন্তানকে সাথে নিয়ে জিয়াউর রহমান (৪৩) ঢাকার শনির আখড়ায় বসবাস করতেন।

এদিকে, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (ওসি) মো. বাচ্চু মিয়া মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ‘মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে রাখা হয়েছে। এ বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানাকে জানানো হয়েছে।