আলোচিত নায়িকা পরীমণি আইস ও এলএসডি মাদকসহ আটক

এস,এম মনির হোসেন জীবনঃ চলচ্চিত্র জগতের আলোচিত নায়িকা পরীমণিকে গ্রেফতার করেছে এলিট ফোর্স র‌্যাব।

আজ বুধবার রাত সাড়ে আটটার দিকে তাকে রাজধানীর বনানীর নিজ বাসা থেকে আটকের পর উওরাস্হ র‌্যাব সদর দপ্তরে নিয়ে যাওয়া হয়।

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন সাংবাদিকদের বলেন, পরীমণির বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ মদ ও অন্যান্য জিনিসপএ উদ্ধার করা হয়েছে। তাকে আটক করে র‌্যাব সদর দপ্তরে আনা হয়েছে। পরীমণির বিষয়ে বৃহস্পতিবার বিস্তারিত জানানো হবে।

এদিকে, র‌্যাবের গোয়েন্দা শাখার পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল খায়রুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, পরীমণির বাসা থেকে বিদেশি মদের পাশাপাশি আইস ও এলএসডি উদ্ধার করা হয়েছে। র‌্যাব জানান, এর আগে আজ বিকাল সাড়ে ৪ টার দিকে রাজধানীর বনানীস্হ চিত্রনায়িকা পরীমণির বাসায় অভিযান চালানো হয়েছে।

তার বাসা থেকে বিদেশি ব্র্যান্ডের মদ, ইয়াবার পাশাপাশি ভয়ঙ্কর মাদক এলএসডি (লাইসার্জিক অ্যাসিড ডায়েথিলামাইড) এবং আইসও (ক্রিস্টাল মেথ) পাওয়া গেছে। এ মাদক উচ্চবিত্ত ঘরের সন্তানদের সেবনের প্রবণতা বেশি।

কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, ‘সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে তার বাসায় অভিযান চালানো হয়েছে। শিগগিরই বিস্তারিত জানানো হবে। তিনি আরও জানান, আজ রাতে র‌্যাব সদরদফতরেই থাকবেন পরীমনি। তাকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। এরপর আগামীকাল আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জানা গেছে, আজ বুধবার বিকাল পৌনে ৪ টার দিকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা সুনিদিষ্ট তর্থ্যের ভিওিতে এ চিত্রনায়িকার বনানীর বাসায় উপস্থিত হয়ে অভিযান চসলায়। এরপর আতঙ্কিত পরীমনি ফেসবুক লাইভে এসে তাদের পরিচয় পাননি বলে দাবি করেন।

উল্লেখ্য যে, গত ১৪ জুন ২০২১ ঢাকা জেলার সাভার থানায় নির্যাতন ও ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে ছয় জনের নামে মামলা দায়ের করেন নায়িকা পরীমণি। মামলায় ব্যবসায়ী নাসির ইউ মাহমুদকে প্রধান আসামি করা হয়। এরপর বেশ কিছু সিসিটিভি ফুটেজে নায়িকা পরীমনি বিতর্কিত হয়ে ওঠেন। আসামিরা বর্তমানে জামিনে আছেন।