আশুলিয়া হতে গাড়ী চোর চক্রের ৩ সদস্য গ্রেফতারঃ২ টি পিকআপ উদ্ধার

আশুলিয়া হতে গাড়ী চোর চক্রের ৩ সদস্য গ্রেফতারসহ ২ টি পিকআপ উদ্ধার করেছে র‍্যাব।

র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সবসময় বিভিন্ন ধরণের অপরাধীদের গ্রেফতারের ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। র‍্যাবের সৃষ্টিকাল থেকে চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসী, খুনী, বিপুল পরিমান অবৈধ অস্ত্র গোলাবারুদ উদ্ধার, ছিনতাইকারী, অপহরণ ও প্রতারকদের গ্রেফতার করে সাধারণ জনগণের মনে আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।

এছাড়াও বিভিন্ন সময়ে সংগঠিত চাঞ্চল্যকর অপরাধে জড়িত অপরাধীদের আইনের আওতায় এনে র‍্যাব জনগনের সুনাম অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।

গত ০৪/০৯/২০২১ ইং তারিখ আনুমানিক রাত ১০টার দিকে মোঃ সজিব খলিফা (২৬) এর একটি পিকআপ (গাড়ীর রেজিঃ নং-ঢাকা মেট্টো-ন-১৩-৭২৩৩) সাভার থানাধীন রাজালাক সরকারী নার্সারি ও উপজেলা মডেল মসজিদের মাঝামাঝি গলি হতে চুরি হয়। পরবর্তীতে গাড়ীর মালিক মোঃ সজিব খলিফা তার পিকআপটি আশপাশের বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুজি করে না পেয়ে বিষয়টি র‌্যাব-১, উত্তরা, ঢাকাকে অবহিত করে। এরই প্রেক্ষিতে র‌্যাব-১ চোরাই দলের সদস্যদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনতে দ্রুততার সাথে ছায়া তদন্ত শুরু করে এবং গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি করে।

এরই ধারাবাহিকতায় গত ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ ইং তারিখ রাত১০.৩০মিনিটের দিকে র‌্যাব-১ এর একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এর অভিযানে ঢাকা জেলার আশুলিয়া থানাধীন জিরানী এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে গাড়ী চুরি চক্রের সক্রিয় সদস্য ১) মোঃ আরিফুল ইসলাম (৩১), পিতা-মৃত আব্দুল হামিদ, জেলা-ঢাকা, ২) মোঃ শরিফুল ইসলাম (৩০), পিতা-মোঃ আকমল শেখ, জেলা-গোপালগঞ্জ ও ৩) মোঃ নুর উদ্দিন (১৯), পিতা-মোঃ সাইদুল হক, জেলা-দিনাজপুর’দেরকে গ্রেফতার করা হয়। এসময় ধৃত আসামীদের নিকট হতে চোরাইকৃত ০২ টি পিকআপ, ০৩ টি মোবাইল এবং নগদ ১,৫০০/- টাকা উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফারকৃত আসামীদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, তারা সংঘবদ্ধ যানবাহন/গাড়ী ছিনতাই/চুরি চক্রের সদস্য।

এই সংঘবদ্ধ গাড়ী ছিনতাই কারী চক্রের সাথে ১০-১২ জন জড়িত। ইতিপূর্বে এই সিন্ডিকেটের সদস্যরা দেশের বিভিন্ন এলাকা হতে গাড়ী ছিনতাই/চুরি করেছে বলে জানায়। প্রথমত এই দলের সদস্যরা বিভিন্ন ছদ্মবেশে গাড়ী সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করে থাকে। মূলত গাড়ী পার্কিং, গতিবিধি, চালক ও মালিক সম্পর্কে পূর্বেই তথ্য সংগ্রহ করে থাকে। এই দলটি মাঠ পর্যায় হতে গাড়ী ছিনতাই/চুরি করে থাকে।

এছাড়াও তারা ক্ষেত্র বিশেষে চালকদের প্রলুব্ধ করে ছিনতাই নাটক সাজিয়ে থাকে। এই দলে বিভিন্ন অভিজ্ঞতা সম্পন্ন সদস্যরা থাকে। যেমন অভিজ্ঞ চালক ও মেকানিক ইত্যাদি। যাতে নির্বিঘ্নে ছিনতাই বা চুরিকৃত গাড়ী নিয়ে দ্রুত স্থান ত্যাগ করতে পারে।

গ্রেফতার কৃতরা পরস্পর যোগসাজশে গত ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ ইং তারিখ রাতে সাভার থানাধীন রাজালাক সরকারী নার্সারি ও উপজেলা মডেল মসজিদের মাঝামাঝি গলির সাভার হাইওয়ে এবং সাভার ব্যাংক কলনী রাস্তার বাম পাশ হতে পিকআপ ০২ টি চুরি করে ঢাকা জেলার আশুলিয়া থানাধীন জিরানী সাকিনস্থ বারৈপাড়া বাসস্ট্যান্ডে নিয়ে আসে। পরবর্তীতে পিকআপের ব্যাটারী, তেলের পাম্প, ঝগহুলরেন্স, গাড়ীর তেরপাল অন্যত্র বিক্রয় করে বলে জানায়। এই গাড়ী চুরি চক্রের অন্যান্য সদস্যদের গ্রেফতারে র‍্যাব ১ তৎপর রয়েছে।

গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।