স্বরূপকাঠিতে ইউএনও’র বিরুদ্ধে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের সংবাদ সম্মেলন

হযরত আলী হিরু, পিরাজপুরঃ
পিরোজপুরের স্বরূপকাঠিতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মোশারেফ হোসেনের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তুলে সংবাদ সম্মেলন করেছেন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নার্গিস জাহান। শুক্রবার স্থানীয় ভিডিএস মিলনায়তনে ওই সম্মেলনে তিনি লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করেন। বক্তব্যে তিনি বলেন, শহীদ দিবসে শহীদ বেদিতে ইউএনও’র হস্তক্ষেপে উপজেলা পরিষদকে ফুল দিতে দেওয়া হয়নি। নার্গিস জাহান তার বক্তব্যে বলেন যুব মহিলা লীগের সমাবেশ করার জন্য হল পাওয়ার জন্য আবেদন করেও হল পাননি। বক্তব্যে তিনি আরও অভিযোগ করেন, ৬ লাখ টাকার চাঁদর ও শীতবস্ত্র কেনার বিষয়ে উপজেলা পরিষদকে না জানানো, ঘর নির্মান কাজে বরাদ্ধের অতিরিক্ত টাকা ব্যায় করা, ঘর নির্মানের বিষয়সহ উন্নয়ন কাজের বিষয়ে তাকে অবহিত করা হয় না। এমন কি তাকে ওই পদ থেকে অপসারনেরও চেষ্টার অভিযোগ আনেন তিনি। সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন তিনি। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, উপজেলা চেয়ারম্যানকে জানানো হলেও তিনি কেন এ ব্যাপারে কোন পদক্ষেপ নেননি। সংবাদ সম্মেলনতো চেয়ারম্যানের করার কথা তিনি নেই কেন এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মহোদয়কে সংবাদ সম্মেলনের বিষয়ে জানানো হয়েছিল। তাকে থাকতেও অনুরোধ করা হয়েছিল কিন্তু তিনি থাকেননি। এ বিষয়ে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আব্দুল হক বলেন, সব উন্নয়ন কাজই সংশ্লিষ্ট বিভাগের উর্ধবতন কর্তপক্ষের নির্দেশনা অনুযায়ী বাস্তবায়ন হয়। কর্তপক্ষের নির্দেশের বাইরে যাওয়ার সুযোগ কারো নেই।
অভিযোগের বিষয়ে ইউএনও মো. মোশারেফ হোসেনের মতামত জানতে চাইলে তিনি বলেন, উপজেলা পরিষদের প্রধান চেয়ারম্যান তিনি সিদ্ধান্ত দিয়েছেন রাতে তিনি নদীর পশ্চিম পাড়ে এবং সকালে পূর্ব পাড়ে ফুল দিবন। সেখান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানকে উপজেলা পরিষদের পক্ষে ফুল দেওয়ার সুযোগ কোথায়। তবে আলাদা ভাবে তাকে ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে ফুল দেওয়ার জন্য বলার আগেই তিনি চলেগেছেন। উন্নয়ন কাজের বিষয়ে তিনি জানান, উপজেলা পরিষকে অবহিত না করে কোন উন্নয়ন কাজ করার সুযোগ নেই। সব কাজের বিষয়ে সংশ্লিষ্ট বিভাগের সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা থাকে। ওই নির্দেশনার আলোকে কাজ বাস্তবায়ন করা হয়।