পিরোজপুরে খাবারে চেতনা নাশক খাইয়ে টাকা ও স্বর্ণালংকার চুরি

মিরাজুর রহমান (পিরোজপুর)ঃ পিরোজপুর জেলার নাজিরপুরে খাবারের সাথে চেতনা নাশক ঘুমের ঔষধ খাইয়ে পরিবারের সকলকে অজ্ঞান করে চুরির ঘটনা ঘটেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে উপজেলার শ্রীরামকাঠী ইউনিয়নের দক্ষিণ জয়পুর গ্রামে রমেন মিস্ত্রীর পরিবারে ১৮ মে সন্ধ্যায় এক অপরিচিতা নিজেকে বীথি, গাওখালী বাড়ির পরিচয়ে পানি পান করতে চান এবং রাতে থাকার আশ্রয়ের অনুরোধ করেন।

রমেন মিস্তীর পরিবার রাতে থাকতে দেন এবং রাতে সকলে একত্রে খানা খেয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। ১৯ মে সকাল বেলা পাড়া প্রতিবেশিরা কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে ডাকাডাকি করলে ঘরের দরজা খোলা দেখে ঘরের ভিতরে প্রবেশ করে সবাইকে ঘুমে অচেতন ও ঘরের মালামাল, দ্রব্যাদি এলোমেলো দেখতে পান । স্থানীয়রা রমেন মিস্ত্রী(৪৩) মালা রানী মিস্ত্রী (৩৮)উষা রানী ঢালী (৬৮) কে নাজিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করে দেন।

পরে রমেন মিস্ত্রীর অবস্থা অবনতি হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে পিরোজপুর সদর আধুনিক হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে । তবে জানা গেছে বীথি নামক ঐ অপরিচিতাই নগদ টাকা স্বর্নালংকা সহ প্রায় ৫ লক্ষাধিক টাকার মালামাল চুরি করে নিয়ে গেছে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে খাবারের সাথে চেতনা নাশক ঔষধ জাতীয় কিছু মিশিয়ে খাওয়ানো হয়েছে। রোগীরা এখন আশংকামুক্ত, সুস্থ হতে৫–৭ দিন সময় লাগবে।